আল্লাহ এবং পরকালের আবাস্থলের পথে যাত্রা-০৩

1316

কবিতাটির অনুবাদ

তারাই ভাগ্যবান, যারা ধ্বংসাত্মক পথ পরিহার করে
আল্লাহর সন্তুষ্টির মঞ্জিলে পৌছাতে দৃঢ় ইচ্ছা পোষণ করে

যারা সর্বোচ্চ আন্তরিকতা নিয়ে চলে
এমনসব বিধি-নিষেধ মেনে চলে, যার মাধ্যমে ঈমান পরিমাপ করা হয়

তারা তাদের ভ্রমণকে ভয় এবং আশার মাঝে সজ্জিত করে নেয়

যাদের হৃদয় স্বর্গীয় জ্যোতিতে র্পূণ; যেখানে থাকে-
পরম দয়ালুর জন্য ভালোবাসা এবং তার প্রতি ভক্তি

যারা তাকে স্মরণ করে অধিক পরিমাণে
প্রকাশ্যে, গোপনে, সদা সর্বদা

তারা সার্বভৌম প্রভূর নৈকট্য অন্বেষণ করে-
তাঁর আনুগত্য করা এবং অবাধ্যতা পরিহার করার মাধ্যমে

অবশ্য পালনীয় এবং ঐচ্ছিক কাজগুলো সম্পাদন করে
নিজেদের ভুল গুলো গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে

তাদের অন্তরসমূহ মন্দ কাজে সর্বোচ্চ ধৈর্য্য ধারণ করে
যার উপর ভর করে স্বর্গ-সুখের আকাঙ্ক্ষা করা যায়

তারা তৃপ্তির মঞ্জিলে পৌঁছে যায়
চূড়ান্তভাবে পৌঁছে যায় উদ্যান এবং নিরাপত্তায়

সৃষ্টির প্রতি তাঁর অসীম অনুগ্রহের জন্য কৃতজ্ঞ থাকে
তাদের মন, জিহ্বাসহ শরীরের সকল অঙ্গ প্রত্যঙ্গ

সকল কাজে কর্মে আল্লাহর ভরসা তাদের সঙ্গী এবং
তার তাঁর সন্তুষ্টির জন্য সকল প্রচেষ্টা চালিয়ে যায়

আল্লাহর ইবাদত এবং তাঁর প্রতি একনিষ্ঠ বিশ্বাস স্থাপন করে
এভাবেই তাদের অবস্থান উচ্চতর মঞ্জিলে পৌছে যায়

জ্ঞান, নির্দেশনা এবং করুণা সহকারে
এমন বিষয়ে লোকজনকে উপদেশ প্রদান করা, যা প্রভূকে খুশি করে

মানুষের আল্লাহভীতি কমে যাওয়ার বিষয়ে
তারা সকলকে সতর্ক করে

তাদের অন্তর মনোযোগ বিনষ্টকারী সকল কাজ থেকে মুক্ত থাকে
সম্পূর্ণভাবে নিবেদিত থাকে করুণাময়ের তরে

তাদের চলাফেরা, উদ্বেগ এবং দৃঢ়সংকল্প সবই আল্লাহর জন্য
সৃষ্টি বা শয়তানের জন্য নয়

এসকল পথের অন্বেষণকারী হচ্ছেন সর্বোত্তম বন্ধু
যা সদ্বগুণ এবং ইহসান অর্জনের দিকে পরিচালিত করে

(পরিমার্জিত)

চলবে……